Bangla Story: একটি সাধারণ গল্প


Bangla Story: একটি সাধারণ গল্প:
Bangla Story: একটি সাধারণ গল্প
Bangla Story: একটি সাধারণ গল্প


ছেলেটির নাম মেঘ, মেয়েটির নাম বৃষ্টি...

শ্রীকান্তের এই গানের মতো কিন্তু ছেলেটি আর মেয়েটির এত সুন্দর নাম নেই, তবুও মেঘের মতো বৃষ্টির সাথে মিলেমিশে একাকার হয়ে জড়িয়ে আছে দুজনের নাম ..... ঠিক যে বয়সে ছেলেটি মেয়েটির প্রেমে পড়েছিল, নেহাতই বাচ্চা একটা বয়স, প্রেম বিষয়টা হয়তো জানেই না কেউ এই বয়সে। প্রথম দেখায় মেয়েটিকে ভালো লেগে যায়। মেয়েটিও কিভাবে যেন জেনে গেলো এই ভালো লাগার কথাটা.....ছেলেটি মেয়েটিকে বলতে পারে না কিন মেয়েটি ক্লাশে না এলে ছেলেটির ভালো লাগে না, ক্লাশে কিংবা ক্লাশের বাইরে কখনও কোন কথাও হয় নি মেয়েটির সাথে। শুধু চেয়ে থাকা। হ্যাঁ ছেলেটি শুধু চেয়েই থাকতো.. মেয়েটাও আড়চোখে দেখতো। কিন্তু কেউ কাউকে কিছু বলেনা....শুধু চেয়ে থাকা....


এমনি করে যায় যদি দিন যাক না...


এভাবেই ছেলেটি উদাস চোখে চেয়ে থেকেই দিনাতিপাত করে, রোজ ক্লাশে যায়, মেয়েটি পৌঁছার আগে গিয়েই ক্লাশে বসে থাকে শুধু এক নজর দেখার জন্য....কিন্তু কোন কথা হয় না। প্রাইভেট পড়তে গিয়ে অপেক্ষায় থাকে কখন মেয়েদের ব্যাচ পড়তে আসবে, শুধু একটু চোখের দেখা দেখবে...... বন্ধুরা বলে... বলে ফেলনা, ছেলেটির ভয়, যদি না হয়, থাক না... এমনি করে যায় যদি... দিন যাক না। বন্ধুরা মেয়েটিকে বলে দেয়, যে মেয়ে আগে থেকেই উপলব্ধি করে, তার উপস্থিতি অনুভব করতে পারে, তাকে আর নতুন করে কি বলা? কিন্তু মেয়েটা একদম পাত্তা দেয় না। বন্ধুদের বলে এসব ভাবার সময় নেই.....তাছাড়া যার কথা সে নিজে এসে বলে না কেন?

আজ দুজনার দু'টি পথ...

দুজনার দুটি পথ কখনও এক হয়নি...আবার কোন এক অদৃশ্য কারণে একই ছিল। দিন যায়..মাস গড়ায়..... বছর পেরিয়ে যায়। ছেলেটি এখনও প্রতিদিন ক্লাশে যায় কিন্তু মেয়েটির সাথে আর দেখা হয় না। কারণ দুজন এখন দু'জায়গায় ক্লাশ করে, দেশের নামকরা দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তারা ভর্তি হয়। মেয়েটি ভুলে যায় ছেলেটিকে অথবা আবার মনে করে...নতুন বান্ধবীদের শোনায় ছেলেটির গল্প, ছেলেটিও নতুন বন্ধুদের সাথে মেয়েটিকে নিয়ে গল্প করে। কারণে অকারণে মেয়েটি ভাবে ছেলেটির কথা, ছেলেটি ভাবে মেয়েটির কথা.... আবার ভুলেও যায়...এর কারণ ভৌগলিক দুরত্ব। মাঝে মাঝে পুরাতন বন্ধুদের সাথে একসাথে হয়ে কোথাও ঘুরতে যাওয়া....আবার সেই চেয়ে থাকা...সবাই সবার সাথে গল্প করে, শুধু ছেলেটি মেয়েটিকে দেখে...মেয়েটিও আড়চোখে ছেলেটিকে...

মনে কি দ্বিধা রেখে চলে গেলে...

ঘুরে বেড়াতে বেড়াতে এমনই এক দিনে..মেয়েটি ঢাকায় যায়...কি যেন কি হয়...ছেলেটি বলে তার জমে থাকা কথাগুলো...ছেলেটিকে মেয়েটি নিজের সব কথা খুলে বলে...কত কথা জমে ছিল মনে...দুজনেরই সামনে ইয়ার ফাইনাল...কথা শেষ হয়না.. কিন্তু যে কথাটা ছেলেটি বলতে চাইলো তা আর বলা হলো না, মেয়েটি বাসে উঠে তার গন্তব্যে চলে গেল...ছেলেটি মনে মনে যে গানটি গুনগুনিয়ে উঠলো ঠিক সেই মুহুর্তে একই গান মেয়েটিও মনে মনে গাইলো...মনে কি দ্বিধা রেখে গেলে....

ভালোবাসি...ভালোবাসি..এই সুরে..



ছেলেটি মেয়েটি এখন প্রায়ই কথা বলে...মেয়েটির ক্যাম্পাসে ছেলেটি আসে.... না বলা কথা গুলো বলে যায়...মেয়েটির মুখপানে চেয়ে থাকার দিন শেষ না হয়ে নতুন করে শুরু হয়....ছেলেটির ক্যাম্পাসে মেয়েটি যায়... প্রজাপতি দিন গুলো আরো রংগীন হয়....মেঘ ভালো লাগে..ভালো লাগে বৃষ্টি...ছেলেটি কবিতা নিয়ে আসে...মেয়েটি শোনায় গান...দিন যায়..মাস গড়ায়..... বছরের পর বছর পেরিয়ে যায়..স্বপ্ন শুধু স্বপ্ন..দেখে মন..আকাশ.. বাতাস ফুল.. পাখি.. নদী..সব গেয়ে উঠে ভালোবাসি ভালোবাসি.....

চাকরীটা আমি পেয়ে গেছি, বেলা...সত্যি....

পড়তে পড়তেই ছেলেটি চাকরী পায়, মেয়েটির খুশী দেখে কে..সেই সাথে মেয়েটি দুঃখীও হয়...নিজের পড়া শেষ হয়নি...অনার্স ফাইনাল সামনে...মেয়েটির বাসা থেকে বিয়ের চাপ দেয়...মেয়েটি বাসায় মা কে ছেলেটির কথা সব বলে... মা শর্ত জুড়ে দেয়...ছেলেটির সাথে দেখা কম হবে...কথা হবে মেপে মেপে...কবে যে এই দূরত্ব ঘুচবে...মেয়েটি আবার একা হয়ে যায়...ব্যাস্ততা ছেলেটিকে ছুটি দেয় না..মেয়েটিকে বোঝায় আর মাত্র কয়েকটা দিন ব্যাস....

আজি মধুরও বাঁশরী বাজে...গোধুলী লগনে বুকেরও মাঝে...

মেয়েটির মা মেয়েটির বাবাকে রাজি করাতে পারেনা, বাবা ওর বিয়ে ঠিক করে...বুয়েটের টিচার...ক্যানাডা থাকে...অনেক সুখী হবি তুই মা, বাবা বলে। বাবাকে মেয়েটি বোঝায় বিদেশী পাত্রের সাথে বিয়ে হলে সুখী হবো...আবার নাও হতে পারি....কিন্তু এই ছেলেটির সাথে বিয়ে হলে আমি নিশ্চিত যে সুখীই হবো। হুট করে ছেলেটির বাবা মেয়েটির বাবাকে ফোন করে, কথা হয় তারা মেয়ে দেখতে আসবে...ঢিপ ঢিপ..মেয়েটা তার ভিতরে ধুকপুকানি শুনতে পায়..সাতদিন পরে আসবে...ছেলেটির কাছে সাতদিন সময় সাতযুগের মতো লাগে..দেখতে এসেই ছেলেটির সাথে মেয়েটির বিয়ে হয়ে যায়...আজ সেই দিন... মাঝে শুধু নয় বছর কেটে গেছে...শুধু নয় বছর কেন... যুগ যুগান্তর পার করতে চায় তারা..


ছেলেটির নাম মেঘ, মেয়েটির নাম বৃষ্টি... ছেলেটির নাম রোহেল...মেয়েটির নাম সুরভী।


-Fouzia Suravy


Photo by Tahseen Tashfia


Read More Paperback Stories:

Comments

Popular posts from this blog

Paperback Stories: খোলা জানালা

Silence in Return